নবজাতক ও ছোট শিশুকে খাওয়ানোর নিয়ম

নবজাতক ও ছোট শিশুকে খাওয়ানোর নিয়ম

একটি শিশুর জন্মের পর মায়ের দায়িত্ব স্বাভাবিকভাবে হাজার গুন বেড়ে যায়। বাচ্চাকে খাওয়ানো, গোসল করানো, ঘুম পাড়ানো আরও কতো কিছু। প্রথম শিশুর জন্মের পর তাকে খাওয়ানো নিয়ে একজন মাকে অনেক অসুবিধাতেই পড়তে হয়।এক্ষেত্রে  পরিবারের একেক জনের একেক মত। কেউ কেউ বলে ঘড়ি ধরে বাচ্চাকে খাওয়ানো উচিত, আবার কারও মনে হয় বাচ্চার খিদে কিছুতেই মিটছে না। এত সব পরামর্শের পর ও   মা বেচারিকে বেশ বিভ্রান্তই হতে হয়। তাই নতুন মায়েদের সুবিধার জন্য আজকের এই আয়োজন জেনে নিন কিছু নবজাতককে খাওয়ানোর  নিয়ম-

নম্বর ১:  নবজাতক সাধারনত একবারে বেশি পরিমান খেতে পারে না। এজন্য একবারে অনেকটা খাইয়ে পেট বেশি ভরিয়ে দিবেন না। অল্প অল্প করে বার বার খাওয়ানোই বাচ্চার জন্য বেশি ভালো। 

নম্বর ২:  বাচ্চাকে খাওয়ানোর জন্য রুটিন করে নেবেন না। ওর যখন খিদে পাবে তখনই ওকে খেতে দিন। বাচ্চা যত বড় হতে থাকবে তত বেশি পরিমান খাবে আর খাওয়ার মাঝের ব্যবধানও অনেকটা বাড়বে। তাই অবশ্যই নিজের সুবিধা মতো ওকে রুটিনে বাঁধবেন না। 

নম্বর ৩: আবার যেসব শিশুরা সময়ের আগেই জন্ম নেয় তারা অন্য শিশুদের তুলনায় কম খেতে পারে। অনেক সময় দেখা যায় এসব বাচ্চারা এত বেশি ঘুমায় যে তাদের খিদে পেলেও উঠতে চায় না। এজন্য বাচ্চা অনেকক্ষন না খেয়ে থাকলে ওকে কোলে নিয়ে হালকা ঝাঁকিয়ে আগে জাগিয়ে নিতে হবে,তারপর দুধ খাওয়ান। কেননা, বেশি সময় না খেয়ে থাকা শিশুর শরীরের জন্য ভালো নয় মোটেই। 

নম্বর ৪: আবার,  শিশুকে খাওয়ানোর সময় তাড়াহুড়ো করবেন না, হাতে সময় নিয়ে ধীরে ধীরে খাওয়াবের। 

নম্বর ৫: মনে রাখবেন, ছোট শিশুকে কখনও বিছানায় শুয়ে দুধ খাওয়ানো ঠিক নয়, এতে শিশুর শ্বাস নালীতে খাবার চলে যেতে পারে। তাই শিশুকে সব সময়ই কোলে নিয়ে বসে খাওয়ানো অভ্যাস করুন।

নম্বর ৬: দেখা যায়, খুব ছোট বাচ্চারা এক থেকে দেড় ঘণ্টা পর পর খায়। তবে যেসব বাচ্চা মায়ের বুকের দুধ খায় তারা আবার বোতলে দুধ খাওয়া বাচ্চার তুলনায় ঘন ঘন খাবে। 

নম্বর ৭: মনে রাখবেন,  বাচ্চাকে খাওয়ানোর পর অবশ্যই ঢেঁকুর তোলাতে হবে। না হলে বাচ্চা বমি করে দিতে পারে। বাচ্চাকে কাঁধের উপর রেখে বা কোলে বসিয়ে ধীরে ধীরে তার পিঠে নীচ থেকে উপর পর্যন্ত চাপড় দিতে থাকুন। এভাবে কিছুক্ষন করার পর পরই বাচ্চা ঢেঁকুর দিবে। ঢেঁকুর দেয়ার সময় মুখ দিয়ে সামান্য খাবার বেরিয়ে আসতে পারে,এতে চিন্তার কোন কিছু নেই। 

নম্বর ৮: অবশ্যই শিশুকে খাওয়ানোর সময় কোলাহল পূর্ণ জায়গা থেকে সরে আসুন।আর  নিরিবিলি পরিবেশে শিশুকে খাওয়ান। 

নম্বর ৯: সমস্যা বোধ করলে খাওয়ানোর নিয়ম কানুন নিয়ে আপনার চিকিৎসকের সাথে পরামর্শ করে নিতে পারেন।

Leave a reply