কাতার ফুটবল বিশ্বকাপে নিষিদ্ধ – ওয়ান নাইট স্ট্যান্ড | ধরা পড়লেই জেল

কাতার বিশ্বকাপে ধরা পড়লেই সাত বছরের জেল কাতারে ফুটবল বিশ্বকাপ দেখতে গেলে মেনে চলতে হবে বেশ কিছু নিয়ম। এক রাতের যৌনমিলনের জন্য হতে পারে সাত বছরের জেল।
কাতার ফুটবল বিশ্বকাপে নিষিদ্ধ - ওয়ান নাইট স্ট্যান্ড | ধরা পড়লেই জেল

২০২২ ফুটবলের বিশ্বকাপের আসর বসতে যাচ্ছে মধ্যপ্রাচ্যের রক্ষণশীল দেশ কাতারে।  যদিও এই দেশটির নিয়ম কানুন অনেকের কাছেই অজানা। ইউরোপিয়ান দেশগুলিতে যে সকল নিয়ম মেনে চলে তার অনেক কিছুই কাতারে নিষিদ্ধ। অবাধ যৌনতা থেকে মদ্যপান, সবকিছুতেই  রয়েছে নিয়ম ও বাধাঁ নিষেধ । তাই বলা যায় ফুটবল ফ্যানদের কাছে এবারের বিশ্বকাপটা খুবই ‘রক্ষণশীল’ হতে চলেছে। আর এই সব নিয়মের এদিক ওদিক হলেই হতে পারে সর্বোচ্চ সাত বছর জেল।

বিশ্বকাপ ফুটবল এলেই দেখা যায়, ম্যাচ শেষে রাতভর পার্টি । কিন্তু এই কাজ কাতারে একেবারেই নিষিদ্ধ। সমর্থকদের সাবধান করে দেওয়া হয়েছে যে , এই ধরনের কোনও প্রকার আশা যেন তারা না রাখে, এবারের বিশ্বকাপে। কাতার পুলিশ বাহিনি থেকে বলা হয়েছে, ‘স্বামী-স্ত্রী জুটি না হলে, এই বিশ্বকাপ দেখতে এসে কাতারে শারীরিক সম্পর্ক করা যাবে না। বিশেষ করে ‘ওয়ান নাইট স্ট্যান্ড’ বা এক রাতের জন্য শারীরিক সম্পর্ক পুরোপুরি নিষিদ্ধ করা হয়েছে। নিয়মের কোন ব্যতিক্রম হলে সাত বছর পর্যন্ত জেল হতে পারে।

বিশ্বকাপে এই প্রথমবার এমন কিছু নিষিদ্ধ করা হচ্ছে। এই বিষয়ে সমর্থকদের সতর্ক থাকতে হবে।’ ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম ‘ডেইলি স্টার’-এর ‘মিরর’ এমনটাই জানিয়েছে। কাতারে, আগ থেকেই বিবাহবহির্ভূত কোন রকম যৌনমিলন এবং সমকামী সম্পর্ক নিষিদ্ধ। দেশটিতে এ ধরনের কোন  অভিযোগ প্রমাণিত হলে শাস্তি পেতে হয় নাগরিকদের । যদিও বিশ্বকাপের আয়োজক সংস্থা ফিফা বলছে, সব ধরনের মানুষকে আমন্ত্রণ জানানো হচ্ছে এবারের বিশ্বকাপে ।

কাতার বিশ্বকাপে ফিফার প্রধান নির্বাহী নাসের আল খাতের বলেন, “প্রত্যেক সমর্থকের নিরাপত্তা আমাদের কাছে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু সবার সামনে ব্যক্তিগত ভালোবাসা দেখানো এটি আমাদের দেশের সংস্কৃতি হতে পারে না । আর এটা সবার জন্যই প্রযোজ্য।’ কাতার সুপ্রিম কমিটির পক্ষ থেকেও সকলকে সতর্ক করা হয়েছে। এই কাতার ফুটবল সংস্থার সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘কাতার খুব রক্ষণশীল দেশ। এখানে অনেক কিছুই করা সম্ভব নয়। সমকামিতা শুধু সেখানে প্রকাশ করা উচিত যেসব দেশে বিষয়টা মানা হয়।’

বিশ্বকাপ আয়োজকরা বলছেন, প্রত্যেক অতিথিদের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করাই তাদের প্রধান লক্ষ্য। তাই তাদের দেশে গিয়ে কেউ কোন ধরনের বিপদের মধ্যে পড়ুক,  তা চায় না আয়োজকরা। তাই কেও, কাতার ফুটবল বিশ্বকাপ ২০২২ দেখতে যাওয়ার পরিকল্পনা করে থাকলে, তাকে এই নিয়মগুলে মেনে চলতেই হবে – বাধ্যতামূলকভাবে ।

ছবি: সংগৃহীত | সুত্র : সমকাল 

Leave a reply