অনলাইনে জাতীয় পরিচয়পত্র ডাউনলোড করার উপায় | nidw.gov.bd

জরুরী ভিত্তিতে ভোটার আইডি কার্ড দরকার অথচ এখনো মূল আইডি কার্ড হাতে পান নি! এখন আর কোন সমস্যা নেই, অনলাইনে, আপনার ভোটার আইডি কার্ড সংগ্রহ করুন খুবই সহজে ।
অনলাইনে জাতীয় পরিচয়পত্র ডাউনলোড করার উপায় | nidw.gov.bd The Dhaka Journal অনলাইনে জাতীয় পরিচয়পত্র ডাউনলোড করার উপায়

জাতীয় পরিচয়পত্র বা ভোটার আইডি কার্ড যা প্রত্যেক প্রাপ্ত বয়স্ক মানুষের জন্য একটি বাধ্যতামূলক নথিপত্র। এই ছোট একটি কার্ডে একজন নাগরিকের পরিচয় বহন করে। এই কার্ডটিতে মূলত একজন মানুষ কোন দেশের নাগরিক, আপনার নাম, স্বাক্ষর, পিতা মাতার নাম, ব্লাড গ্রুপ, ঠিকানা সহ বর্তমানে বায়োমেট্রিক সেন্সর ব্যবহার করে ফিগারপ্রিন্ট ও চোখের লেন্স স্ক্যানের মাধ্যমে আপনার পরিচিতির নির্ভুল তথ্য সংগ্রহ করা হয়ে থাকে৷ 

  • ভোটার আইডি কার্ড দেখতে চাই?
  • ভোটার আইডি কার্ড চেক করার উপায় কি?
  • নতুন ভোটার আইডি কার্ড করার নিয়ম কি?
  • নতুন আইডি কার্ড কিভাবে দেখবো কিভাবে?
  • ভোটার আইডি কার্ড কিভাবে বানানো যায়?
  • অনলাইনে ভোটার আইডি কার্ড চেক করার নিয়ম কি?
  • ভোটার আইডি কার্ড অনলাইনে কিভাবে পাওয়া যায়?
  • জাতীয় পরিচয়পত্র সংশোধন করার নিয়ম কি?
  • ভোটার আইডি কার্ড জন্ম তারিখ সংশোধন কিভাবে করবো?
  • ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করার নিয়ম কি?
  • হারানো আইডি কার্ড উত্তোলনের জন্য আবেদন ফরম
  • ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন ফরম সংগ্রহ
  • ভোটার আইডি কার্ডের ঠিকানা পরিবর্তন ফরম পুরন
  • অনলাইনে ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন করার উপায়
  • আইডি কার্ড বা জাতীয় রিচয়পত্র অনলাইন কপি তোলা

উপরে উল্লেখ করা যেকোন প্রশ্ন আপনার মনেও থেকে থাকলে আমাদের এই প্রতিবেদনটি মনোযোগ দিয়ে পড়েন, ঘরে বসে জাতীয় পরিচয়পত্র সংশোধনভোটার আইডি চেক ও অনলাইন থেকে আইডি কার্ড সংগ্রহ করুন সহজেই ।

অনলাইনে আপনার ভোটার আইডি কার্ড সংগ্রহ করুন

মাত্র কয়েক মিনিটের ভিতর ভোটার ফর্ম নাম্বার / জাতীয় পরিচয়পত্রের নাম্বার দিয়ে অনলাইন থেকে আপনার আইডি কার্ড সংগ্রহ করা যায় । অনলাইন থেকে আপনারা কিভাবে আইডি কার্ড সংগ্রহ করবেন এটা জানার আগে, ভোটার আইডি কার্ড/জাতীয় পরিচয় পত্র নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ কিছু তথ্য জেনে নেওয়া যাক।

ভোটার আইডি কার্ড /এনআইডি কার্ড/ জাতীয় পরিচয় পত্র কি?

বাংলাদেশের নাগরিক হিসেবে প্রত্যেক ব্যক্তিকে ১৮ বছর বয়স হওয়া মাত্রই, সরকারি খাতায় নথিভুক্ত হতে হয় এবং এই নথিভুক্তিকরণ প্রক্রিয়াটির মাধ্যমে আমরা জাতীয় পরিচয়পত্র বা এন আইডি কার্ড বা ভোটার আইডি  কার্ড হাতে পাই । এই কার্ডটি একটি প্রমাণ স্বরূপ কাজ করে, যে আপনি এদেশের নাগরিক কিনা? ১৮ বছর বা তার উর্দ্ধে সকল ব্যক্তিকে নথির তালিকা ভুক্ত করার লক্ষ্যে ও আমাদের সুবিধার্থে সরকার বিভিন্ন পদক্ষেপের মাধ্যমে ভোটার তালিকা সংগ্রহ করে । এছাড়া বর্তমানে অনলাইন সেবার মাধ্যমেও আপনি চাইলেই বিভিন্ন তথ্যসহ আপনার ভোটার আইডি কার্ডটি সংগ্রহ করতে পারেন

নতুন আইডি কার্ড কিভাবে দেখব?

বর্তমানে, ভোটার আইডি কার্ড দুই ধরনের পাওয়া যাচ্ছে। নরমাল আইডি কার্ড ও স্মার্ট আইডি কার্ড। আপনার আইডি কার্ড অনলাইনে দেখার সময় আপনাকে অবশ্যই চেক করতে হবে আপনার নামে স্মার্ট কার্ড তৈরি হয়েছে কিনা?  আর এটিও অনলাইনে চেক বা যাচাই করা যাবে। চলুন, আমরা প্রথমে অনলাইন থেকে ভোটার আইডি কার্ড সংগ্রহ করার উপায় এবং স্মার্ট কার্ড সংগ্রহ করার উপায় দেখে নেই। অনলাইন থেকে আপনি চাইলেই যেকোন সময় আপনার ভোটার আইডি কার্ডটি সংগ্রহ করতে পারেন। এজন্য আপনাকে যা করতে হবে তা হলো-

প্রথমে বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন নামের ওয়েবসাইটটিতে প্রবেশ করতে হবে। সেখানে “অন্যান্য তথ্য” নামক অপশন এর মাঝে “ভোটার তথ্য” অপশনটি খুজে বের করে তাতে, ক্লিক করুন। চাইলে আপনি,   services.nidw.gov.bd লিংকের মাধ্যমে সরাসরি ওয়েবসাইটি ভিজিট করতে পারবেন।

আপনি ২টি অপশন পেয় যাবেন, “ফর্ম নম্বর” (ভোটার নিবন্ধন ফরমের স্লিপ নম্বর) ও ‘এন আই ডি নম্বর” । এর মাঝে আপনাকে যেকোনো একটি অপশন সিলেক্ট করতে হবে আর যে নম্বরটি আপনার জানা আছে ।

নিচে এবার এন আই ডি নম্বর / ফরম নম্বর এবং জন্ম তারিখ এর সঠিক তথ্য সঠিকভাবে দিন। এরপর একটি বক্সে থাকা ক্যাপচার টি একদম হুবহু সতর্কতার সাথে টাইপ করুন ।

সকল প্রকার তথ্য  সঠিক দেওয়া হলে “ভোটার তথ্য দেখুন ” নামক বাটনে ক্লিক করুন।

উপরের সকল তথ্যগুলো আপনি যদি সঠিক ভাবে দিয়ে থাকেন তাহলে, এর পরই আপনি যে জাতীয় পরিচয়পত্রটি সংগ্রহ করতে চাচ্ছেন সেটি দেখতে পারবেন।

ভোটার আইডি ডাওনলোডের জন্য রেজিট্রেশন কিভাবে করবেন?

অনলাইন থেকে ভোটার আইডি কার্ডটি ডাউনলোড করার জন্য ওয়েবসাইটে আপনাকে রেজিষ্ট্রেশন করতে হবে৷ উপরে বলা নিয়মানুসারে আপনার কাঙ্খিত ভোটার আইডি কার্ড এর সকল তথ্য দেখতে পেলে পরবর্তী কাজ গুলোর মাধ্যমে আপনি রেজিষ্ট্রেশন করতে পারবেন খুব  সহজেই। এজন্য যা করতে হবে-

১। প্রথমেই রেজিষ্ট্রেশন করার জন্য  এই লিঙ্কে ক্লিক করুন services.nidw.gov.bd । তবে, যদি আপনার আগে থেকেই একাউন্ট থেকে থাকে, তবে লগইন অপশন সিলেক্ট করলে হবে।

২। নিচের মত একটি পেজ পেয়ে যাবেন।

অনলাইনে-ভোটার-আইডি-কার্ড-ডাউনলোড

৩। উপরের ছবিতে যেসব তথ্য সম্পর্কে জানতে চাওয়া হয়েছে তা সঠিক ভাবে পূরণ করে, “সাবমিট” করতে হবে।

৪। এরপর  নিজের ঠিকানার তথ্য দিতে হবে।

৫। ছবির সকল তথ্য পূরণ করুন এবং পরবর্তীতে বাটনে ক্লিক করুন।

৬। মোবাইল নম্বরের মাধ্যমে আপনাকে অবশ্যই একটি verification code দিতে হবে, যা আপনার ফোনে পেয়ে যাবেন।

৭। পরবর্তীতে লগইন এর সুবিধার্থে আপনি একটি পাসওয়ার্ড তৈরি করুন এবং এর মাধ্যমেই আপনার রেজিষ্ট্রেশন সফলভাবে হয়ে যাবে।

জাতীয় পরিচয়পত্র বা ভোটার আইডি কার্ড এর রেজিষ্ট্রেশনের জন্য আপনার কাছে যেসব তথ্য সম্পর্কে জানতে চাওয়া হবে অবশ্যই তা সঠিক ভাবে ভাবে পুরন করতে হবে, নয়ত রেজিষ্ট্রেশনের জন্য আপনার আবেদনটি গ্রহণ করা হবে না। তাই সঠিক তথ্য দেওয়ার ফলে উপরের নিয়মানুযায়ী আপনি নিজেই সহজে রেজিষ্ট্রেশনের কাজটি করে ফেলতে পারবেন। 

অনলাইন থেকে আপনার ভোটার আইডি কার্ড সংগ্রহ /ডাওনলোড করুন

১। রেজিষ্ট্রেশনের সময় যে পাসওয়ার্ডটি সেট করেছেন আপনাকে সেটি দিয়ে লগইন করতে হবে৷ 

২। লগইন এর জন্য আপনার NID নম্বর, পাসওয়ার্ড এবং একটি ক্যাপচা একদম হুবহু লিখে লগইন করুন।

৩। এবার সেখানে নিচের ছবির মতো কিছু তথ্য, দেখবেন। তারপর ডাউনলোড নামক অপশন এর মাধ্যমে আপনার কাঙ্খিত ভোটার আইডি কার্ড এর PDF ফাইল পেয়ে যাবেন ।

অনলাইন-থেকে-ভোটার-আইডি-কার্ড-সংগ্রহ

৪। এই PDF ফাইল প্রিন্ট-আউট করে লেমিনেটিং করলে রাখলে আপনার প্রয়োজন অনুসারে যেকোন কাজে এটি ব্যবহার করতে পারবেন।

অনলাইন থেকে কারা ভোটার আইডি কার্ড সংগ্রহ করতে পারবেন? এবং শর্তাবলী

১. নতুন নিবন্ধিত ভোটার,  যাদের জাতীয় পরিচয়পত্র এখনও মুদ্রিত হয়নি, শুধু তারা কোন খরচ ছাড়াই জাতীয় পরিচয়পত্র অনুলিপি ডাউনলোড করতে পারবেন।

২. যারা এর আগে জাতীয় পরিচয়পত্র পেয়েছিলেন কিন্তু, তাদের পুনরায় জাতীয় পরিচয়পত্র অনুলিপি ডাউনলোড করার জন্য হারিয়ে যাওয়া বা ক্ষতির জন্য একটি নিদিস্ট ফি দিয়ে আবেদন করতে হবে।

৩. যারা সংশোধনের জন্য আবেদন করেছেন তারা কেবলমাত্র সংশোধন হওয়ার পরে  সংশোধিত জাতীয় পরিচয়পত্র ডাউনলোড করতে পারবেন ।

তথ্যসূত্র : services.nidw.gov.bd

আপনি এখনো যদি আপনার অরিজিনাল জাতীয় পরিচয়পত্র হাতে পেয়ে না থাকেন, তাহলে অনলাইনে ভোটার আইডি কার্ড কপি সংগ্রহ করতে পারবেন। যদি আপনার আইডি কার্ডে কোন ভুল থেকে থাকে, এবং আপনি সংশোধনের জন্য আবেদন করে থাকেন, তবে মূল কপি হাতে পাওয়ার আগে অনলাইনে আইডি কার্ড সংগ্রহ করে নিতে পারবেন। অথবা, আপনার ভোটার আইডি কার্ড যদি হারিয়ে যায়, এবং আপনি যদি রিইস্যু করেন, তবে রিইস্যু করার পর অনলাইনে আইডি কার্ড কপি ডাউনলোড করে নিতে পারবেন।

নতুন ভোটারদের অনলাইন স্মার্ট কার্ড স্ট্যাটাস চেইক করার নিয়ম

এবার, যারা নতুন ভোটার তালিকায় নাম দিয়েছেন অথবা যাদের স্মার্ট আইডিটি এখনও হাতে পাননি তারা কিভাবে অনলাইন স্মার্ট কার্ড স্ট্যাটাস চেইক করবেন জানুন। আপনার স্মার্ট কার্ডে স্ট্যাটাস চেইক করার জন্য  প্রথমে Bangladesh National NID Application System এ প্রবেশ করে জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর / ফর্ম নম্বর এবং জন্ম তারিখ লিখে সাবমিট করলেই আপনার স্মার্ট কার্ড স্ট্যটাস পেয়ে যাবেন সহজেই।

সুত্র : nidw.gov.bd

Leave a reply